ঢাকা ১০ শ্রাবণ ১৪৩১, বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪

সুভা গল্পের ৩৪টি বহুনির্বাচনি প্রশ্ন ও উত্তর, ২য় পর্ব, এসএসসি বাংলা ১ম পত্র

প্রকাশ: ০৭ জুলাই ২০২৪, ০৭:২৯ পিএম
আপডেট: ০৭ জুলাই ২০২৪, ০৭:২৯ পিএম
সুভা গল্পের ৩৪টি বহুনির্বাচনি প্রশ্ন ও উত্তর, ২য় পর্ব, এসএসসি বাংলা ১ম পত্র

বহুনির্বাচনি প্রশ্ন ও উত্তর

২১। সুভা নিজেকে গোপন করে রাখতে সর্বদা চেষ্টা করত কেন?
(ক) সুন্দর নয় বলে    (খ) কথা বলতে পারে না বলে
(গ) শিক্ষিত নয় বলে    (ঘ) ধনীর মেয়ে বলে
২২। সবাই ভুলে গেলে কে বাঁচে?
(ক) সুভাষিণী    (খ) সুহাসিনী
(গ) প্রতাপ    (ঘ) সুকেশিনী
২৩। প্রকৃতি কার ভাষার অভাব পূরণ করে দেয়?
(ক) প্রতাপের     (খ) সুভাষিণীর
(গ) সুহাসিনীর    (ঘ) সুকেশিনীর
২৪। ‘কিন্তু মাতা তাহাকে নিজের গর্ভের কলঙ্ক জ্ঞান করিয়া তাহার প্রতি বড় বিরক্ত ছিলেন’-কার প্রতি?
(ক) প্রতাপের প্রতি    (খ) সুকেশির প্রতি
(গ) সুভার প্রতি    (ঘ) সুহাসিনীর প্রতি
২৫। সুদীর্ঘ পল্লববিশিষ্ট বড় বড় দুটি কালো চোখ ছিল কার?
(ক) সুকেশিনীর    (খ) সুভার
(গ) সুহাসিনীর    (ঘ) প্রতাপের
২৬। সুভার ওষ্ঠাধর ভাবের আভাসমাত্র কীসের মতো কেঁপে উঠত?
(ক) হরিণের মতো    (খ) কচি কিশলয়ের মতো
(গ) নির্জীবের মতো    (ঘ) অসহায়ের মতো
২৭। কথায় আমরা যে ভাব প্রকাশ করি তা আমাদের কী করতে হয়?
(ক) ভুলে যেতে হয়    (খ) ভালোবাসতে হয়
(গ) গড়ে তুলতে হয়    (ঘ) তর্জমা করতে হয়
২৮। কীসের অভাবে অনেক সময় কথায় আমরা যে ভাব প্রকাশ করি তা ভুল হয়?
(ক) ক্ষমতার    (খ) তর্জমার
(গ) সময়ের    (ঘ) চিন্তার
২৯। কেমন চোখকে কিছু তর্জমা করতে হয় না?
(ক) অন্ধ    (খ) বোবা
(গ) কালো    (ঘ) নীল
৩০। সুভা অবসরে কোথায় বসে থাকে?
(ক) রাস্তায়    (খ) বাগানে
(গ) নদীতীরে    (ঘ) পুকুরপাড়ে
৩২। অস্তমান চন্দ্রের মতো অনিমেষভাবে চেয়ে থাকে কী?
(ক) কালো চোখ    (খ) নীল চোখ
(গ) বোবা চোখ    (ঘ) নির্জীব চোখ
৩৩। ‘সুভা’ গল্পে কালো চোখের সঙ্গে সাদৃশ্য রয়েছে কীসের?
(ক) কচি কিশলয়ের    (খ) ক্ষমতার
(গ) উজ্জ্বল মণির    (ঘ) দ্রুত চঞ্চল বিদ্যুতের 
৩৪। মুখের ভাব বৈ আজন্মকাল যাহার অন্য ভাষা নাই তাহার কীসের ভাষা অসীম উদার?
(ক) চোখের    (খ) মুখের 
(গ) ঠোঁটের     (ঘ) হাসির
৩৫। ‘সুভা’ গল্প অনুসারে অতলস্পর্শ গভীর কী?
(ক) চোখের চাহনি    (খ) চোখের ভাষা
(গ) চোখের রং    (ঘ) চেতনা
৩৬। ‘সুভা’ গল্প অনুসারে স্বচ্ছ আকাশের সঙ্গে সাদৃশ্য রয়েছে কীসের?
(ক) সুন্দর মুখের    (খ) সুন্দর চুলের
(গ) চোখের ভাষার    (ঘ) মুখের ভাষার
৩৭। ‘সুভা’ গল্পে ছায়ালোকের রঙ্গভূমি কেমন?
(ক) সুন্দর    (খ) নিস্তব্ধ
(গ) কোলাহলপূর্ণ    (ঘ) নির্জীব
৩৮। বাক্যহীন মানুষের মধ্যে বৃহৎ প্রকৃতির মতো একটা বিজন কী রয়েছে?
(ক) বন     (খ) মাঠ
(গ) মহত্ত্ব    (ঘ) আলো
৩৯। সাধারণ বালিকারা কাকে ভয় করত?
(ক) প্রতাপকে    (খ) সুভাকে
(গ) সুহাসিনীকে    (ঘ) সুকেশিকে
৪০। নির্জন দ্বিপ্রহেরর সঙ্গে সাদৃশ্য রয়েছে কার?
(ক) প্রতাপের    (খ) বাণীকণ্ঠ
(গ) সুকেশিনীর    (ঘ) সুভার
৪১। চণ্ডীপুর গ্রামের নদীটির সঙ্গে কীসের সাদৃশ্য রয়েছে?
(ক) কচি কিশলয়ের    (খ) স্বচ্ছ পদ্মার
(গ) গৃহস্থ ঘরের মেয়ের    (ঘ) মায়াবি চোখের
৪২। চণ্ডীপুর গ্রামের পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া নদীটি কেমন?
(ক) বড়    (খ) খুব বেশি প্রসারিত নয়
(গ) ছোট    (ঘ) খুব বেশি গভীর নয়
৪৩। বাণীকণ্ঠের বাড়ির বেড়া কীসের?
(ক) বাখারির    (খ) কাঠের
(গ) টিনের    (ঘ) লোহার
৪৪। বাণীকণ্ঠের বাড়ি কেমন?
(ক) একচালা    (খ) দোচালা
(গ) আটচালা    (ঘ) মাটির
৪৫। বাণীকণ্ঠের বাড়ি কার দৃষ্টি আকর্ষণ করে?
(ক) কৃষকের    (খ) গ্রামবাসীর
(গ) নৌকাবাহীর    (ঘ) জেলেদের
৪৬। ‘কাজকর্মে যখনি অবসর পায়, তখনি সে এই নদীতীরে আসিয়া বসে।’ কার কথা বলা হয়েছে?
(ক) বাণীকণ্ঠের    (খ) সুভার
(গ) প্রতাপের    (ঘ) সুভার মায়ের
৪৭। সুভা নিয়মিত কতবার করে গোয়ালঘরে যায়?
(ক) একবার    (খ) দুবার
(গ) তিনবার    (ঘ) চারবার
৪৮। কারা সুভার মর্মবেদনা বুঝতে পারত?
(ক) সুভার পিতা-মাতা    (খ) সুভার বন্ধু প্রতাপ
(গ) সুভার গাভি দুটি    (ঘ) সুভার বোনেরা
৪৯। কে সুভার গরম কোলটি নিঃসংকোচে অধিকার করে সুখনিদ্রার আয়োজন করত?
(ক) কুকুরছানা    (খ) বিড়ালছানা
(গ) ছাগলছানা    (ঘ) গরুর বাছুর
৫০। সুভার উন্নত শ্রেণির বন্ধুটি কে?
(ক) সর্বশী    (খ) পাঙ্গুলি
(গ) প্রতাপ    (ঘ) বিড়ালছানা
৫১। বোবা প্রকৃতির মুখোমুখি চুপ করে বসে থাকে কে?
(ক) বাণীকণ্ঠ    (খ) প্রতাপ
(গ) সুভা    (ঘ) সুকেশিনী
৫২। সুভাদের গোয়ালে কয়টি গাভি ছিল?
(ক) দুটি    (খ) তিনটি
(গ) চারটি    (ঘ) পাঁচটি
৫৩। যে কথা কয় না, সে যে অনুভব করে ইহা সকলের মনে হয় না- এ বাক্যে প্রকাশ পেয়েছে-
i. বাকপ্রতিবন্ধীর প্রতি সমাজের মানুষের অবহেলা
ii. যে কথা বলতে পারে না তারও অনুভব শক্তি রয়েছে
iii. নির্বাক প্রাণীর প্রতি মমত্ববোধ
নিচের কোনটি ঠিক?
(ক) i ও ii    (খ) i ও iii
(গ) ii ও iii    (ঘ) i, ii ও iii
৫৪। সর্বশী ও পাঙ্গুলি কীসের নাম?
(ক) নদীর    (খ) সুভার বোনদের
(গ) গাভীর    (ঘ) গ্রামের
৫৫। সর্বশীর সঙ্গে সাদৃশ্য রয়েছে কার?
(ক) সুহাসিনীর    (খ) সুকেশিনীর
(গ) পাঙ্গুলির    (ঘ) বাণীকণ্ঠের

উত্তর: ২১. খ, ২২. ক, ২৩. খ, ২৪. গ, ২৫. খ, ২৬. খ, ২৭. গ, ২৮. ক, ২৯. গ, ৩০. গ, ৩১. গ, ৩২. ক, ৩৩. ঘ, ৩৪. ক, ৩৫. খ, ৩৬. গ, ৩৭. খ, ৩৮. গ, ৩৯. খ, ৪০. ঘ, ৪১. গ, ৪২. খ, ৪৩. ক, ৪৪. গ, ৪৫. খ, ৪৬. খ, ৪৭. গ, ৪৮. গ, ৪৯. খ, ৫০. গ, ৫১. গ, ৫২. ক, ৫৩. ক, ৫৪. গ, ৫৫. গ।

আতাউর রহমান সায়েম , সিনিয়র শিক্ষক (বাংলা)
আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, মতিঝিল, ঢাকা/আবরার জাহিন

স্থগিত হলো এইচএসসির আরও ৪ পরীক্ষা

প্রকাশ: ২৫ জুলাই ২০২৪, ০২:২৪ পিএম
আপডেট: ২৫ জুলাই ২০২৪, ০২:২৪ পিএম
স্থগিত হলো এইচএসসির আরও ৪ পরীক্ষা
ফাইল ফটো

চলমান এইচএসসি ও সমমানের আরও চারটি পরীক্ষা স্থগিত করেছে বাংলাদেশে আন্তঃশিক্ষাবোর্ড। এর মধ্যে চলতি জুলাইয়ে তিনটি এবং আগস্টে একটি পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল।

বৃহস্পতিবার (২৫ জুলাই) আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় কমিটির সভাপতি ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক তপন কুমার সরকার এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, আগামী ২৮, ২৯ ও ৩১ জুলাই এবং ১ আগস্টের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। স্থগিত হওয়া সব পরীক্ষা ১১ আগস্টের পর অনুষ্ঠিত হবে।

বিস্তারিত আসছে...

প্রাথমিক বিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ

প্রকাশ: ২৫ জুলাই ২০২৪, ১২:৫২ পিএম
আপডেট: ২৫ জুলাই ২০২৪, ১২:৫৪ পিএম
প্রাথমিক বিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ
ছবি: সংগৃহীত

দেশের চলমান পরিস্থিতিতে সব সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

বুধবার (২৪ জুলাই) প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান তুহিন গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন। 

তিনি জানান, শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে প্রাথমিক বিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। পরবর্তী ঘোষণা না দেওয়া পর্যন্ত স্কুল বন্ধ থাকবে।

এদিকে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান (স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা ও কারিগরি প্রতিষ্ঠান) এবং পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটগুলোর শ্রেণি কার্যক্রম পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত কলেজগুলোও বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত সব কলেজ ও প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ থাকবে।

স্থগিত এইচএসসি পরীক্ষা ১১ আগস্টের পর

প্রকাশ: ২৫ জুলাই ২০২৪, ১২:১৯ পিএম
আপডেট: ২৫ জুলাই ২০২৪, ০২:১৮ পিএম
স্থগিত এইচএসসি পরীক্ষা ১১ আগস্টের পর
খবরের কাগজ (ফাইল ফটো)

সারা দেশে কোটা সংস্কার আন্দোলনে সহিংস কর্মকাণ্ডের ফলে শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা বিবেচনা করে স্থগিত করা ২০২৪ সালের এইচএসসি ও সমমানের চার দিনের পরীক্ষা আগামী ১১ আগস্টের পর অনুষ্ঠিত হবে।

বৃহস্পতিবার (২৫ জুলাই) আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় কমিটির সভাপতি ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক তপন কুমার সরকার সংবাদমাধ্যমকে এ তথ্য জানান।

তপন কুমার বলেন, ‘স্থগিত হওয়া সব পরীক্ষা ১১ আগস্টের পর অনুষ্ঠিত হবে।’

আর কোনো পরীক্ষা স্থগিত হতে পারে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এখনো নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। কোনো সিদ্ধান্ত নিলে জানানো হবে।’

চলমান এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় গত ১৮ জুলাই সকালে ছিল ভূগোল (তত্ত্বীয়) দ্বিতীয়পত্র এবং বিকেলে ছিল উচ্চাঙ্গ সংগীত (তত্ত্বীয়) প্রথম পত্র, আরবি প্রথম পত্র, পালি প্রথম পত্র পরীক্ষা। 

২১ জুলাই সকালে ছিল রসায়ন (তত্ত্বীয়) প্রথম পত্র, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি প্রথম পত্র, ইতিহাস প্রথম পত্র, গৃহ ব্যবস্থাপনা ও পারিবারিক জীবন প্রথম পত্র এবং উৎপাদন ব্যবস্থাপনা ও বিপণন প্রথম পত্র।
 
২৩ জুলাই সকালে ছিল রসায়ন (তত্ত্বীয়) দ্বিতীয় পত্র, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি দ্বিতীয় পত্র, ইতিহাস দ্বিতীয় পত্র, গৃহ ব্যবস্থাপনা ও পারিবারিক জীবন দ্বিতীয় পত্র এবং উৎপাদন ব্যবস্থাপনা ও বিপণন দ্বিতীয় পত্র। 

আর ২৫ জুলাই সকালে ছিল অর্থনীতি দ্বিতীয় পত্র, প্রকৌশল অঙ্কন এবং ওয়ার্কশপ প্র্যাকটিস প্রথমপত্র।

আগামী ২৮ জুলাই যথারীতি সূচি অনুযায়ী পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

পূর্ব নির্ধারিত সূচি অনুযায়ী আগামী ১১ আগস্ট এইচএসসির তত্ত্বীয় পরীক্ষা শেষ হওয়ার কথা ছিল।

অমিয়/

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে যা জানালেন শিক্ষামন্ত্রী

প্রকাশ: ২৪ জুলাই ২০২৪, ০৯:৪৩ পিএম
আপডেট: ২৪ জুলাই ২০২৪, ০৯:৪৪ পিএম
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে যা জানালেন শিক্ষামন্ত্রী
শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী

শিক্ষার্থীদের শতভাগ নিরাপত্তা নিশ্চিত করেই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী। 

বুধবার (২৪ জুলাই) সচিবালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি এ কথা জানান।

মন্ত্রী আরও বলেন, ‘পুনরায় এইচএসসি পরীক্ষা শুরুর বিষয়ে চিন্তা করা হচ্ছে। আগামী সপ্তাহের নির্ধারিত পরীক্ষার বিষয়ে আমরা বসেছি। প্রথম অগ্রাধিকার হচ্ছে, রাজধানীসহ ঢাকা জেলা বা পার্শ্ববর্তী যে জেলাগুলো আছে, সেগুলোর এক রকম পরিস্থিতি। আবার অন্য যে জেলাগুলো আছে, সেখানে আরেক রকম পরিস্থিতি। এসব আলাদাভাবে বিবেচনা করা হচ্ছে।’

পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের শতভাগ নিরাপত্তা নিশ্চিত করা ছাড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়টি এই মুহূর্তে বিবেচনা করতে পারছি না। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বলতে শুধু বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজ নয়, আমাদেরকে তো বিদ্যালয়গুলো নিয়েও কাজ করতে হয়। তবে উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য আলাদাভাবে ভাবতে হবে।’ 

আন্দোলনকারীদের আলটিমেটাম নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘আন্দোলনের প্রথম থেকে দেখা গেছে, ঘোষণা হচ্ছে একটা। আর কাজ হচ্ছে আরেকটা। ঘোষণাকারীরা বলছেন, শান্তিপূর্ণভাবে এই-সেই করা হবে। তবে এটা যারা বাস্তবায়ন করছেন, তারা কিন্তু সেটা শান্তিপূর্ণ প্রক্রিয়ার মধ্যে রাখছেন না। আলটিমেটাম দিয়ে কেউ যাতে পরিস্থিতি অস্থিতিশীল করতে না পারে, আমরা সেটাই অনুরোধ করব।’ 

প্রাথমিক বিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ

সারা দেশের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। 

বুধবার রাতে মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান তুহিন খবরের কাগজকে এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে দেশের সব প্রাথমিক বিদ্যালয় আপাতত বন্ধ থাকবে। পরিস্থিতি বিবেচনা করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত জানানো হবে।’

প্রাণহানির ঘটনায় বিচার চায় বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সমিতি

প্রকাশ: ১৮ জুলাই ২০২৪, ০৭:২৪ পিএম
আপডেট: ১৮ জুলাই ২০২৪, ০৭:২৪ পিএম
প্রাণহানির ঘটনায় বিচার চায় বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সমিতি
বাংলাদেশ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সমিতি

কোটা সংস্কার আন্দোলন ঘিরে প্রাণহানির ঘটনায় দোষীদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সমিতি। 

বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) বিকেলে সমিতির সাধারণ সম্পাদক ড. কাজী আনিস আহমেদ স্বাক্ষরিত বিবৃবিতে এ দাবি জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, ‘সরকারি চাকরির কোটা পদ্ধতি বিষয়ে দেশব্যাপী সৃষ্ট সংঘাতময় পরিস্থিতিতে বাংলাদেশ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সমিতি গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। বিশেষত কোটাবিরোধী সাধারণ শিক্ষার্থীদের আন্দোলনকে কেন্দ্র করে দেশের বিভিন্ন স্থানে মর্মান্তিক প্রাণহানির ঘটনায় আমরা গভীরভাবে শোকাহত। সম্ভাবনাময় তরুণ প্রাণের অকালে ঝরে যাওয়া, দেশ ও জাতির জন্য এক অপূরণীয় ক্ষতি। এমন ন্যক্কারজনক ঘটনার তীব্র নিন্দা এবং দোষী ব্যক্তিদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানাই। সেই সঙ্গে সহিংসতার ফাঁদে পা না দিয়ে, কোটা সংস্কার প্রসঙ্গে মাননীয় আদালতের সুচিন্তিত রায়ের জন্য শিক্ষার্থীদের ধৈর্যশীল ভূমিকা পালনের আহ্বান জানাই।’

আন্দোলনে স্বার্থান্বেষী মহলের প্ররোচনা থেকে সচেতন থাকার আহ্বান জানিয়ে বিবৃবিতে বলা হয়, ‘বাংলাদেশ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সমিতি আশা করে, সংঘাত-সহিংসতা মুক্ত বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম রক্ষার্থে শিক্ষার্থীরা, শিক্ষার পরিবেশ ব্যাহত কিংবা ক্যাম্পাস বন্ধ রাখতে হয়, এমন সব কার্যক্রম থেকে নিজেদের বিরত রাখবে। সেসঙ্গে প্রতিযোগিতামূলক বিশ্বে নিজেদের যোগ্য করে গড়ে তোলার লক্ষ্যে লেখাপড়ায় মনোনিবেশ করবে। চলমান অবস্থা দীর্ঘায়িত তথা বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যক্রম বন্ধ থাকলে শিক্ষার্থীরা ক্ষতিগ্রস্ত হবে এবং জাতি হিসেবে আমরা পিছিয়ে পড়ব। বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার পরিবেশ সমুন্নত রাখার ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট সবার সার্বিক সহযোগিতা একান্তভাবে কাম্য।’