ঢাকা ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, রোববার, ২৬ মে ২০২৪

স্বস্তিকার সঙ্গে রাজের জুটি

প্রকাশ: ১৫ মে ২০২৪, ০৭:৫১ পিএম
স্বস্তিকার সঙ্গে রাজের জুটি

কলকাতার জনপ্রিয় অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়। এবার তার নায়ক হয়ে পর্দায় হাজির হবেন ঢালিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা শরিফুল রাজ। সিনেমার নাম ‘আলতাবানু জোসনা দেখেনি’। এটি নির্মাণ করবেন হিমু আকরাম।

গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসের শুরুতে নির্মাতা নায়িকা হিসেবে স্বস্তিকার নাম ঘোষণা দিয়েছিলেন। ওই সময় তার নায়ক কে হচ্ছেন, তা জানাতে পারেননি। এবার জানা গেল সিনেমাটিতে স্বস্তিকার বিপরীতে রাজকে চূড়ান্ত করা হয়েছে।

এটি প্রযোজনা করবেন বেঙ্গল মাল্টিমিডিয়া। প্রযোজনা সংস্থার  একটি সূত্র এই তথ্য নিশ্চিত করেছে। তবে আর কিছুদিন পরই এর আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসবে বলেও সূত্র জানিয়েছে।

এর আগে নির্মাতা হিমু আকরাম জানিয়েছিলেন, এখানে একজন শক্তিশালী অভিনেতা প্রয়োজন। অনেকের সঙ্গেই কথা হয়েছে। একটা মানুষের তিনটি লুক থাকতে হবে। ওই জায়গা থেকে চরিত্রটি মেলানো কঠিন। উপযুক্ত কাউকে খুঁজে পেলেই তাকে নেওয়া হবে। অবশেষে শরিফুল রাজকেই খুঁজে পেয়েছেন নির্মাতা।

এটি হিমু আকরামের প্রথম সিনেমা। এর চিত্রনাট্য লিখেছেন যৌথভাবে হিমু আকরাম, মোহাম্মদ নাজিম উদ দৌলা ও মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন। 
সৈয়দপুর, সুন্দরবন, রাজেন্দ্রপুরের শালবনে সিনেমাটির দৃশ্য ধারণ হবে বলে জানা গেছে। সিনেমায় স্বস্তিকা ও রাজের পাশাপাশি ইরেশ যাকের, মামুনুর রশীদ, সোহেল মণ্ডলসহ আরও অনেকেই অভিনয় করবেন বলে জানিয়েছেন নির্মাতা।

এর আগে শাকিব খানের বিপরীতে ‘সবার উপরে তুমি’ নামের সিনেমায় অভিনয় করেছিলেন স্বস্তিকা। সিনেমাটি নির্মাণ করেছিলেন এফ আই মানিক।

‘আলতাবানু জোসনা দেখেনি’ ছাড়াও স্বস্তিকা কামরুল হোসেন রিফাতের পরিচালনায় ‘ওয়েন ইলেভেন’ নামের একটি সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন।

আবরার জহিন

এফটিপিওতে হীরা, সাগর ও জুয়েলের কার্যক্রম স্থগিত

প্রকাশ: ২৬ মে ২০২৪, ১২:১৮ পিএম
এফটিপিওতে হীরা, সাগর ও জুয়েলের কার্যক্রম স্থগিত

ডিরেক্টরস গিল্ডের সভাপতি অনন্ত হীরা, সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান সাগর ও সাংগঠনিক সম্পাদক শামীম রেজা জুয়েলকে ফেডারেশন অব টেলিভিশন প্রফেশনালস অর্গানাইজেশন  (এফটিপিও)-এর সব কার্যক্রমে অংশগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। অগ্রহণযোগ্য নেতৃত্বের কারণে সংগঠনকে অকার্যকর করায়, সংশ্লিষ্ট অন্যান্য সংগঠনের সঙ্গে বৈরিতা, সমন্বয়হীনতা, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সাংগঠনিক সম্পাদকের আপত্তিকর মন্তব্যে’র কারণে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে টেলিভিশন শিল্পী-কলাকুশলীদের ১৩ সংগঠনের সমন্বয়ে গঠিত এই সংগঠনটি।

 গত ২১ মে এফটিপিও’র মিটিংয়ে রেজুলেশন করে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। ডিরেক্টরস গিল্ডের নির্বাচিত কমিটির সর্বসম্মত সিদ্ধান্তের মাধ্যমে প্রেরিত প্রতিনিধির নতুন তালিকা প্রেরণের আগ পর্যন্ত এই সিদ্ধান্ত বহাল থাকবে।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের ২০ ফেব্রুয়ারি তারিখে দৈনিক খবরের কাগজে ‘নাট্যপরিচালকদের সংগঠনে চলছে তামাশার নাটক’ শীর্ষক সংবাদ প্রকাশের পর টেলিভিশন শিল্পী-কলাকুশলীদের ১৩টি সংগঠনের সমন্বয়ে গঠিত ফেডারেশন অব টেলিভিশন প্রফেশনালস অর্গানাইজেশন (এফটিপিও) নড়েচড়ে বসে। সেই সঙ্গে সমস্যা সমাধানে এগিয়ে আসে এফটিপিও। গত ১১ মার্চ দুই পক্ষকে নিয়ে বসেন তারা। সেই বৈঠকে চলমান অস্থিরতা সমাধানের আশ্বাস এলেও পরবর্তী সময়ে হীরা-সাগর তা মানেননি বলে অভিযোগ রয়েছে। এরপর ৭ এপ্রিল অগ্রগতি না থাকায় ডিরেক্টরস গিল্ডকে নির্দেশনা দিয়ে চিঠি দেয় এফটিপিও। তবে সভাপতির স্বাক্ষরসহ এক চিঠিতে সাধারণ সম্পাদক পাল্টা চিঠি দিয়ে জানান, সংগঠনে কোনো ঝামেলা নেই। সব চলছে নিয়মমাফিক। ১০ এপ্রিল ফেসবুকে মিথ্যা তথ্য, আপত্তিকর উদ্ধত পোস্ট দেয় সাংগঠনিক সম্পাদক শামীম রেজা জুয়েল। সেই সঙ্গে ২৯ এপ্রিল শব্দের মারপ্যাঁচ মিথ্যাচার করে বিভ্রান্ত করতে চিঠির উত্তর দেয় যা গিল্ডের সদস্যদের গ্রুপেও প্রকাশ করে!

এফটিপিওর সাধারণ সভা শেষে ২১ মে সংগঠনটির চেয়ারম্যান নাট্যজন মামুনুর রশীদের স্বাক্ষরসংবলিত চিঠির মাধ্যমে এমনটা জানানো হয়। চিঠিতে দেওয়া ডিরেক্টরস গিল্ডের উত্তর ও ভাষা পছন্দ হয়নি এফটিপিওর। চিঠির ভাষার তীব্র নিন্দা জানানোর পাশাপাশি সাম্প্রতিক অস্থিরতার জন্য দায়ী করে ডিরেক্টরস গিল্ডের সভাপতি অনন্ত হীরা, সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান সাগর ও সাংগঠনিক সম্পাদক শামীম রেজা জুয়েলকে এফটিপিওর সব কার্যক্রমে অংশগ্রহণে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। ডিরেক্টরস গিল্ডের নির্বাচিত কমিটির সর্বসম্মত সিদ্ধান্তের মাধ্যমে প্রতিনিধির নতুন তালিকা প্রেরণের আগ পর্যন্ত এই সিদ্ধান্ত বহাল থাকবে।

এ প্রসঙ্গে এফটিপিওর চেয়ারম্যান নাট্যজন মামুনুর রশীদ খবরের কাগজকে বলেন, ‘এফটিপিওর মহাসচিব সালাউদ্দিন লাভলুকে ডিরেক্টর গিল্ডের সভাপতির অনুমতিক্রমে সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান সাগর মিথ্যাচার করে আক্রমনাত্মকভাবে অযৌক্তিক, অসৌজন্যমূলক চিঠি দেন। এ ছাড়া ফেসবুকে এফটিপিওকে নিয়ে নানারকম মিথ্যা-বানোয়াট কথা প্রচার করেন। দীর্ঘদিন ধরে তারা সংগঠনকে অসহযোগিতাও করে আসছিলেন। এ জন্য ডিরেক্টর গিল্ডের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদককে এফটিপিওর সব কার্যক্রম থেকে তাদের অংশগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে।’ তিনি আরও বলেন, ‘এফটিপিওর বিভিন্ন সভায় শুধু কামরুজ্জামান সাগর যুক্ত থাকতেন। এরপর আমাদের কোনো সভায় তাকে আর রাখা হবে না। তাদের আচরণ এমন ছিল যে, এই সিদ্ধান্ত নেওয়া ছাড়া কোনো উপায়ও ছিল না।’

এ প্রসঙ্গে জানতে ডিরেক্টরস গিল্ডের সভাপতি অনন্ত হীরাকে কল করলে তিনি ব্যস্ত আছেন এবং পরে কল করবেন বলে জানান।

জাহ্নবী

হলে গিয়ে ‘পটু’ সিনেমা দেখলেন রাসিক মেয়র

প্রকাশ: ২৬ মে ২০২৪, ১২:১৫ পিএম
হলে গিয়ে ‘পটু’ সিনেমা দেখলেন রাসিক মেয়র
রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটনের সঙ্গে সিনেমাসংশ্লিষ্টরা

রাজশাহীতে নির্মিত গ্র‍্যান্ড রিভারভিউ হোটেলের সিনেপ্লেক্সে গত শুক্রবার রাতে ‘পটু’ সিনেমা দেখলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন।

প্রদর্শনীর শুরুতে নির্মাতা ও শিল্পী-কলাকুশলীরা রাসিক মেয়রকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। এ সময় রাসিক মেয়র তাদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন। এ সময় ‘পটু’-এর পরিচালক আহম্মেদ হুমায়ূন, অভিনেতা ইভান সাইরসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, জাজ মাল্টিমিডিয়া প্রযোজিত ছবিটি মুক্তি পেয়েছে গত ১০ মে। ছবিটি পরিচালনা করেছেন সংগীত পরিচালক আহম্মেদ হুমায়ূন। প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন ইভান সাইর, আফরা সাইয়ারা, শোয়েব মনির, দিলরুবা দোয়েলসহ অনেকে। এটি মূলত ক্রাইম থ্রিলার একটি সিনেমা। পদ্মাপাড় রাজশাহীর স্থানীয় শিল্পী ও ঢাকার কয়েকজন শিল্পীদের নিয়ে নির্মিত হয়েছে ছবিটি। রাজশাহীর দুর্গম এলাকা চরখানপুরে টানা ২২ দিন শুটিং হয়েছে ছবিটির।

এ ছাড়া রাজশাহী শহর ও নওগাঁয় হয়েছে কিছু শুটিং। চরের মানুষের জীবন নিয়ে এগিয়েছে এর গল্প।

জাহ্নবী

 

হাছন রাজা ও লালনের গানে ম্যাশআপ

প্রকাশ: ২৬ মে ২০২৪, ১২:১৪ পিএম
হাছন রাজা ও লালনের গানে ম্যাশআপ

গানের ভুবনে পরিচিতমুখ খালেদ মুন্না। দীর্ঘবছর ধরে নিয়মিত গান করছেন তিনি। অডিও গানের পাশাপাশি স্টেজ শোতেও নিয়মিত গান পরিবেশন করেন এই গায়ক। সুরকার হিসেবেও রয়েছে খালেদ মুন্নার পরিচিতি। এবার এই গায়ক তার ক্যারিয়ারে প্রথমবার গাইলেন হাছন রাজা ও লালন সাঁইয়ের গানের সঙ্গে জনপ্রিয় কয়েকটি ফোক গানের সমন্বয়ে ‘দ্য ফোক ম্যাশআপ’। ম্যাশআপটির সংগীত পরিচালনা করেছেন রোজেন রহমান।

এটি খালেদ মুন্নার ইউটিউব চ্যানেল ও অনলাইন ডিস্ট্রিবিউশন প্ল্যাটফর্ম- স্ট্রিমো ডিজিটাল থেকে সম্প্রতি প্রকাশিত হয়েছে। এই ম্যাশআপের গানগুলো হচ্ছে ‘নেশা লাগিলো রে’, ‘কমলায় নৃত্য করে’, ‘করিমানা কাম ছাড়ে না’, ‘মিলন হবে কতদিনে’, ‘সোহাগ চাঁদবদনী’, ‘লোকে বলে বলে রে’।

এ সম্পর্কে খালেদ মুন্না বলেন ‘স্টেজে আমি অনেক নাচানাচি করে পারফর্ম করি। কিন্তু আমার রেকর্ডেড গানের ধারাটা একটু ভিন্ন। এজন্য আমার ভক্তরা আমাকে সব সময়ই বলেন আমি যেন রিদমিক গান করি তাদের জন্য। ভক্তদের অনুরোধ, ভালোবাসায় এমন একটি পরিকল্পনা করেছি। অনেকেই আধুনিক মিউজিকে ফোক গান করার অনুরোধ করেছেন। সেখান থেকেই ‘দ্য ফোক ম্যাশআপ’ এর জন্ম। আশা করছি শ্রোতারা এখানে ভিন্ন খালেদ মুন্নাকে খুঁজে পাবেন।’

জাহ্নবী

আজ ঢাকার ভক্তদের সঙ্গে দেখা করবেন বুরাক

প্রকাশ: ২৬ মে ২০২৪, ১২:১৩ পিএম
আজ ঢাকার ভক্তদের সঙ্গে দেখা করবেন বুরাক

বাংলায় ডাবিং করা সিরিজ ‘সুলতান সুলেমান’ ও ‘কুরুলুস ওসমান’ বাংলাদেশের দর্শকদের নজর কেড়েছে। এই সিরিজে অভিনয় করে বিশ্বব্যাপী জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন অভিনেতা বুরাক ওসজিভিত। বাংলাদেশের দর্শকদের কাছে তুমুল জনপ্রিয়তার খবরও পৌঁছে গেছে এই অভিনেতার কাছে। এক ভিডিওবার্তার মাধ্যমে সম্প্রতি তিনি জানিয়েছিলেন ঢাকায় আসছেন তিনি।

সেই ধারাবাহিকতায় গত শুক্রবার ঢাকায়ও এসেছেন বুরাক ওসজিভিত। বর্তমানে রাজধানীর একটি হোটেলে তিনি অবস্থান করছেন। এবার বুরাক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জানালেন, ঢাকার ভক্তদের সঙ্গে দেখা করবেন তিনি। আজ ২৬ মে ভক্তদের সময় দেবেন জনপ্রিয় এই অভিনেতা।
ভিডিও বার্তায় বুরাক আরও জানান, একটি ইলেকট্রনিক্স প্রতিষ্ঠানের গুলশান-১ শাখায় দুপুরে উপস্থিত হবেন তিনি। তখনই ভক্তদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন।

এ ক্ষেত্রে বিশেষ ব্যবস্থা থাকছে ওই প্রতিষ্ঠানের গ্রাহকদের জন্য। যারা সেই নির্দিষ্ট আউটলেট থেকে পণ্য কিনেছেন, তাদের মধ্য থেকেই বাছাই করে কিছু ক্রেতাকে অভিনেতা বুরাকের সঙ্গে সাক্ষাতের সুযোগ দেওয়া হচ্ছে।

ওসজিভিতের জন্ম ১৯৮৪ সালে দক্ষিণ-পূর্ব তুরস্কের ইস্তাম্বুলে। বুরাক তুরস্কের মারমারা বিশ্ববিদ্যালয়ে চারুকলা অনুষদে পড়ালেখা করেছেন। স্নাতক করেছেন ফটোগ্রাফি নিয়ে।

জাহ্নবী

কান চলচ্চিত্র উৎসবে স্বর্ণপাম জিতল সেই ‘আনোরা’

প্রকাশ: ২৬ মে ২০২৪, ০৯:৩৪ এএম
কান চলচ্চিত্র উৎসবে স্বর্ণপাম জিতল সেই ‘আনোরা’

কান চলচ্চিত্র উৎসবের সর্বোচ্চ পুরস্কার স্বর্ণপাম জিতেছে মার্কিন নির্মাতা শন বেকারের সিনেমা ‘আনোরা’।  গত রাতে ৭৭তম কান চলচ্চিত্র উৎসবের সমাপনী দিনে উৎসবে অংশ নেওয়া সিনেমাগুলোর পুরস্কার ঘোষণা করা হয়।

এক যৌনকর্মীর প্রেম নিয়ে সিনেমার কাহিনি। প্রদর্শনীর পর সাত মিনিট অভিবাদন পেয়েছিল ছবিটি। আন্তর্জাতিক কয়েকটি গণমাধ্যম যে ছবিগুলোর পুরস্কারপ্রাপ্তির আগাম অনুমান করেছিল, ‘আনোরা’ সেগুলোর অন্যতম। কমেডি-ড্রামা ঘরানার এই সিনেমায় অভিনয় করেছেন মার্কিন শিল্পী মাইকি ম্যাডিসন। 

উৎসবের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পুরস্কার গ্রাঁ প্রিঁ জিতেছে ভারতের পায়েল কাপাডিয়ার ‘অল উই ইমাজিন অ্যাজ লাইট’। এই সিনেমার মধ্যদিয়ে প্রায় ৩০ বছর পর ভারতীয় কোনো সিনেমা উৎসবের মূল প্রতিযোগিতা বিভাগে পুনরায় জায়গা করে নেয়। এতে অভিনয় করেছেন কানি কুশ্রুতি, দিব্যা প্রভা, ছায়া কদম, ঋধু হারুন।

উৎসবে সেরা নির্মাতার পুরস্কার পেয়েছেন পর্তুগালের মিগুয়েল গোমেজ, তার পিরিয়ড-ড্রামাধর্মী সিনেমা ‘গ্রান্ড ট্যুর’-এর জন্য। সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার পেয়েছেন উৎসবের আলোচিত সিনেমা ‘এমিলিয়া পেরেজ’-এর চার অভিনেত্রী অ্যাড্রিয়ানা পাজ, জোয়ি সালদানা, সেলেনা গোমেজ ও ক্লারা সোফিয়া গ্যাসকন। সিনেমাটির নির্মাতা স্বর্ণপামজয়ী ফরাসি পরিচালক জ্যাক অডিয়াঁর। ‘কাইন্ডস অব কাইন্ডনেস’ সিনেমায় অভিনয়ের জন্য সেরা অভিনেতার পুরস্কার পেয়েছেন মার্কিন অভিনেতা জেসি প্লেমনস। সেরা চিত্রনাট্যের পুরস্কার পেয়েছেন কোরালি ফারজাঁ।

শেষ বেলায় উৎসবে দেখানো ইরানি নির্মাতা মোহাম্মদ রাসুলফ তার ‘দ্য সিড অব দ্য স্যাক্রেড ফিগ’ সিনেমার জন্য পেয়েছেন বিশেষ পুরস্কার ও ফিপরেসি পুরস্কার। দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অভিযোগে চলতি মাসেই তাকে আট বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। সেই দণ্ড মাথায় নিয়ে ইরান থেকে পালিয়ে তিনি যোগ দেন কান চলচ্চিত্র উৎসবে। এ ছাড়া সেরা স্ক্রিনপ্লের পুরস্কার জিতেছে ‘দ্য সাবসট্যান্স’, ক্যামেরা দর জিতেছে হাফদান উলমান ট্যান্ডেল তার ‘আরমান্দ’ সিনেমার জন্য।

গত ১৪ মে শুরু হয় ৭৭তম কান চলচ্চিত্র উৎসব। মূল প্রতিযোগিতা বিভাগে স্বর্ণপামের জন্য লড়েছে ২২টি চলচ্চিত্র।