ঢাকা ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪

টেকসই উন্নয়নে কার্যকর জনসংখ্যা ব্যবস্থাপনা চান প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশ: ১৫ মে ২০২৪, ০৩:১১ পিএম
টেকসই উন্নয়নে কার্যকর জনসংখ্যা ব্যবস্থাপনা চান প্রধানমন্ত্রী
উদ্বোধনী অধিবেশনে বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি : সংগৃহীত

কার্যকর জনসংখ্যা ব্যবস্থাপনার প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘বিশ্বের বিপুল সংখ্যক জনগোষ্ঠীর জন্য প্রয়োজনীয় শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও অন্যান্য মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করার মাধ্যমে তাদের জনসম্পদে রূপান্তর করতে হবে।’

বুধবার (১৫ মে) রাজধানীর ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলে ‘আইসিপিডি-৩০: জনসংখ্যাগত বৈচিত্র্য ও টেকসই উন্নয়ন বিষয়ক বৈশ্বিক সংলাপ’ শীর্ষক দুই দিনব্যাপী ইভেন্টের উদ্বোধনী অধিবেশনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

ইউএনএফপিএর সঙ্গে এই অনুষ্ঠানের আয়োজক বাংলাদেশ, বুলগেরিয়া ও জাপান।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘জনসংখ্যাগত লভ্যাংশের রূপান্তর একটি সমৃদ্ধ বৈশ্বিক ব্যবস্থা তৈরি করতে সক্ষম হবে।’

তিনি বলেন, ‘এই লক্ষ্য অর্জনে সর্বজনীন স্বাস্থ্যসেবা, বিশেষ করে মা ও শিশু স্বাস্থ্যসেবা খাতে আন্তর্জাতিক অর্থায়নের পরিমাণ ও সহজপ্রাপ্যতা নিশ্চিত করার জন্য উন্নয়ন সহযোগী ও আন্তর্জাতিক আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর আরও আন্তরিক হতে হবে।’

শেখ হাসিনা বলেন, ঢাকায় অনুষ্ঠিত এই বৈশ্বিক সংলাপ আগামী সেপ্টেম্বরে জাতিসংঘে অনুষ্ঠেয় ‘সামিট অব দ্য ফিউচার’-এর জন্য প্রয়োজনীয় সুপারিশ প্রণয়নে সহায়ক হবে।

জনসংখ্যা ও উন্নয়ন বিষয়ে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ‘সামিট অব দ্য ফিউচার’-এর ঘোষণাপত্রে দৃঢ় রাজনৈতিক প্রত্যয় ব্যক্ত করবেন বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

শেখ হাসিনা ফিলিস্তিনের জনগণের জন্য অপরিহার্য স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে জাতিসংঘ ও অন্যান্য আন্তর্জাতিক সংস্থার আরও কার্যকর ভূমিকার আহ্বান জানান। 

সরকারপ্রধান বলেন, ‘সেখানে মানুষ ইসরায়েলি আগ্রাসন ও দখলদারিত্বের বিরুদ্ধে প্রতিদিন বেঁচে থাকার জন্য লড়াই করছে। আশা করি জাতিসংঘসহ অন্যান্য আন্তর্জাতিক সংস্থা সেখানে সবার বিশেষ করে নারী ও শিশুর জন্য প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে আরও কার্যকর ভূমিকা পালন করবে।’

তিনি বলেন, ‘জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতিকর প্রভাবে জনস্বাস্থ্যসহ অন্যান্য স্বাস্থ্য ঝুঁকি থেকে বিশ্বের মানুষের বিশেষ করে মা, শিশু ও বয়স্ক জনগোষ্ঠীর নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে বৈশ্বিক সহযোগিতা আরও জোরদার করতে বিশেষ দৃষ্টি দেওয়া প্রয়োজন।’

সরকারপ্রধান বলেন, ‘একইসঙ্গে সংঘাত ও রাজনৈতিক কারণে উপদ্রুত ও বাস্তুচ্যুত জনগোষ্ঠীর দিকে মনোযোগ দেওয়াও অত্যন্ত জরুরি বলে মনে করি।’

এ সময় তিনি মায়ানমার থেকে জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত হয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের প্রসঙ্গ টেনে বলেন, ‘এই প্রসঙ্গে উল্লেখ করতে চাই, বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া মায়ানমার থেকে জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী এবং ইসরায়েলের গণহত্যা ও আগ্রাসনের ফলে নিপীড়িত ফিলিস্তিনি জনগণের কথা। বিপুল সংখ্যক নারী ও শিশু ফিলিস্তিনে আজ প্রয়োজনীয় চিকিৎসা ও স্বাস্থ্যসেবা থেকে বঞ্চিত।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, ইউএনএফপির নির্বাহী পরিচালক ড. নাতালিয়া কানেম, মালদ্বীপের সামাজিক ও পরিবার উন্নয়নমন্ত্রী আইশাথ শিহাম, কিরিবাতির নারী, যুব, ক্রীড়া ও সামাজিকবিষয়ক মন্ত্রী মার্টিন মোরেত্তি, জাপানের পররাষ্ট্রবিষয়ক সংসদীয় উপমন্ত্রী ইয়াসুশি এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. রোকেয়া সুলতানা অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন। বুলগেরিয়া সরকারের প্রতিনিধিও উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

বাসস/সালমান/ 

বাবার দেহাংশ এক টুকরো হলেও চাই, এমপি আনারের মেয়ে ডরিন

প্রকাশ: ২৪ মে ২০২৪, ১০:৩১ পিএম
বাবার দেহাংশ এক টুকরো হলেও চাই, এমপি আনারের মেয়ে ডরিন
সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনারের মেয়ে মুমতারিন ফেরদৌস ডরিন। ছবি: খবরের কাগজ

আমার বাবার লাশের দেহাংশের এক টুকরো আমি চাই। যে লাশের টুকরো ছুঁয়ে দেখতে পারি। লাশের টুকরোকেই বাবা মনে করে জানাজা করাতে চাই।

ঝিনাইদহ-৪ (কালীগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনারকে নৃশংসভাবে হত্যার সুষ্ঠু বিচার ও হত্যার পরিকল্পনাকারীকে গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে আয়োজিত মানববন্ধনে কাঁদতে কাঁদতে এসব কথা বলেন নিহত সংসদ সদস্য আনারের মেয়ে মুমতারিন ফেরদৌস ডরিন।

শুক্রবার (২৪ মে) বিকেলে কালীগঞ্জ পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দারা শহরের মেইন বাসস্ট্যান্ডে এ কর্মসূচির আয়োজন করেন। মানববন্ধন চলাকালে ঝিনাইদহ-যশোর মহাসড়কে আধাঘণ্টা যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

মুমতারিন ফেরদৌস ডরিন বলেন, প্রধানমন্ত্রী বাবা হারানোর ব্যথা-কষ্ট বোঝেন। তিনি আমার বাবা হারানোর বেদনা বুঝবেন। তার বাবার হত্যার বিচার করেছেন, আমার বাবা হত্যার বিচারও করবেন। হত্যার পরিকল্পনাকারীকে ধরার পরই খতিয়ে দেখা যাবে আসলে সে এত বড় অপকর্ম কেন ঘটাল। এর বিচার অবশ্যই হবে।

তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। গতকালও কথা বলেছি। আমরা আইনের আশ্রয় নেব। প্রধানমন্ত্রী আছেন, আওয়ামী লীগের দলীয় সর্বোচ্চ অভিভাবকরা আছেন, তারা আমাদের পরামর্শ দেবেন এবং তারা অবশ্যই তাদের দলীয় এমপি হত্যার সর্বোচ্চ শাস্তির ব্যবস্থা করবেন। কালীগঞ্জের মানুষের সুখে দুঃখে যিনি সবসময় পাশে থেকেছেন সেই মানুষটির হত্যার বিচার আমরা চাই। আমরা কোনো শৃঙ্খলাহানি করতে চাই না।

মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন কালীগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আশরাফুল আলম আশরাফ। এ সময় নব-নির্বাচিত উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শিবলী নোমানী, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মতিয়ার রহমান মতি, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক সোহেল হোসেনসহ আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের সকল পর্যায়ের নেতাকর্মী ও এলাকাবাসী উপস্থিত ছিলেন।

মাহফুজুর রহমান/এমএ/

জুডিশিয়ারিকেও স্মার্ট করতে হবে: প্রধান বিচারপতি

প্রকাশ: ২৪ মে ২০২৪, ০৯:৩১ পিএম
জুডিশিয়ারিকেও স্মার্ট করতে হবে: প্রধান বিচারপতি
প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান। ছবি : খবরের কাগজ

প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান বলেছেন, ‘স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে হলে জুডিশিয়ারিকেও স্মার্ট করে গড়ে তুলতে হবে। এই স্মার্ট জুডিশিয়ারি করার ক্ষেত্রে ন্যায়কুঞ্জ প্রতিষ্ঠা একটি পদক্ষেপ। সংবিধান জনগণের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করেছে। বাংলাদেশের মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার যে আন্দোলন, ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার যে আন্দোলন, সে আন্দোলনে বিচার বিভাগ জনগণের সঙ্গে আছে।’

শুক্রবার (২৪ মে) বিকেলে দিনাজপুরের আদালত প্রাঙ্গণে বিচারপ্রার্থীদের বিশ্রামাগার ‘ন্যায়কুঞ্জ’ উদ্বোধন শেষে এসব কথা বলেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান। 

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন আপিল বিভাগের বিচারপতি ইনায়েতুর রহিম, দিনাজপুর জেলা যুগ্ম দায়রা জজ দেলোয়ার হোসেন, জেলা প্রশাসক শাকিল আহমেদ, পুলিশ সুপার শাহ ইফতেখার আহমেদসহ অন্যরা।

নেতানিয়াহুকে গ্রেপ্তারে আইসিসির দাবিকে বাংলাদেশের পূর্ণ সমর্থন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশ: ২৪ মে ২০২৪, ০৯:০২ পিএম
নেতানিয়াহুকে গ্রেপ্তারে আইসিসির দাবিকে বাংলাদেশের পূর্ণ সমর্থন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ। ছবি : সংগৃহীত

আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের (আইসিসি) চিফ প্রসিকিউটর ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির যে দাবি জানিয়েছেন তাতে বাংলাদেশের পূর্ণ সমর্থন আছে।

শুক্রবার (২৪ মে) এ কথা জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ। 

শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে বাংলাদেশ স্বাধীনতা পরিষদ ও সাপ্তাহিক গণবাংলা আয়োজিত ‘বিশ্ব শান্তি ও ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের প্রতি স্বীকৃতি’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আইসিসির চিফ প্রসিকিউটর নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির যে দাবি জানিয়েছেন, তা আমরা সমর্থন করি। ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী এখন মানবতার শত্রুতে পরিণত হয়েছেন। তিনি এত দূর গিয়েছেন যে যুক্তরাষ্ট্রের কথাও শুনছেন না।’ খবর বাসসের। 

এ সময় ফিলিস্তিন ইস্যুতে বিএনপি ও জামায়াতে ইসলামীর তীব্র সমালোচনা করেন হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, ‘বিএনপি-জামায়াত ইসলামের জন্য মায়াকান্না করে অথচ সারা বিশ্ব যখন গাজায় গণহত্যার বিরুদ্ধে সোচ্চার, তখন তারা ফিলিস্তিনের পক্ষে কখনো একটি শব্দও বলে না। আর জামায়াত সারাক্ষণ ইসলাম-ইসলাম করে মুখে ফেনা তুলে ফেলে অথচ ইসরায়েলের বিরুদ্ধে, ফিলিস্তিনে হত্যার বিরুদ্ধে টুঁ শব্দও করে না। এভাবে চুপ থেকে বিএনপি-জামায়াত নেতানিয়াহুর দোসরে পরিণত হয়েছে।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য ফিলিস্তিন রাষ্ট্র গঠন জরুরি। ইসরায়েলি বাহিনী নির্বিচারে গুলি করে মানুষ হত্যা করছে। বিশ্বের সবখানের জনগণ এখন ফিলিস্তিনের পক্ষে। তবে জাতিসংঘে যখন এ ইস্যু তোলা হয়, তখন কোনো কোনো দেশ ভেটো দেয়। এটি অত্যন্ত দুঃখজনক। তবে ফিলিস্তিন ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সব সময় সোচ্চার। তিনি গাজাবাসীর জন্য সাহায্যও পাঠিয়েছেন।’

সংসদ সদস্য আওলাদ হোসেন বলেন, ‘ফিলিস্তিনে মানবতা লঙ্ঘনের ঘটনা ঘটছে। সারা বিশ্বে এ নৃশংস হত্যাকে গণহত্যা বলে অভিহিত করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইসরায়েলের নৃশংসতার বিরুদ্ধে সোচ্চার ভূমিকা পালন করছেন।’

আওয়ামী লীগের শিল্প ও বাণিজ্য উপকমিটির সদস্য লায়ন মশিউর রহমানের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি ও আলোচকের বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট বলরাম পোদ্দার, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব সফিকুল বাহার মজুমদার টিপু, আওয়ামী লীগ নেতা এম এ করিম, স্বাধীনতা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত হোসেন প্রমুখ।

এমএ/

বাংলাদেশি কর্মীদের ভিসা বন্ধ রেখেছে মালদ্বীপ

প্রকাশ: ২৪ মে ২০২৪, ০৮:১৫ পিএম
বাংলাদেশি কর্মীদের ভিসা বন্ধ রেখেছে মালদ্বীপ
ছবি : সংগৃহীত

বাংলাদেশি কর্মীদের জন্য ভিসা দেওয়া বন্ধ রেখেছে মালদ্বীপ সরকার। তবে কোটা বাড়ানো ও ভিসা চালু করতে চেষ্টা করছে বাংলাদেশ হাইকমিশন। অনুমোদিত নিয়োগ কর্তার বাইরে দেশটিতে কাজ করার সুযোগ নেই। এ আইন ভঙ্গ করার কারণে বেশ কিছু অদক্ষ কর্মীকে দেশে ফেরত পাঠানো হয়েছে। ইউএনবির খবর।

সম্প্রতি মালদ্বীপের মালেতে অবস্থিত বাংলাদেশ হাইকমিশনের পাঠানো বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়। এতে জানানো হয়, মালদ্বীপের বর্তমান আইন অনুযায়ী এক দেশ থেকে এক লাখ কর্মী কাজ করতে পারেন। সে অনুযায়ী মালদ্বীপ সরকার বাংলাদেশিদের জন্য নতুন ওয়ার্ক ভিসা দেওয়া বন্ধ রেখেছে।

তবে হাইকমিশন এই কোটা বাড়াতে ও আবার ভিসা চালু করতে চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে বলে জানানো হয়।

হাইকমিশন জানিয়েছে, ফ্রি ভিসা বলতে কিছু নেই। যে কর্মী যে কোম্পানির ভিসা পেয়েছেন তাকে সেখানে কাজ করতে হবে। এই আইন ভঙ্গ করলে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া এবং যেকোনো সময় গ্রেপ্তার করে দেশে পাঠানো হতে পারে।

ইতোমধ্যে বাংলাদেশের বেশ কিছু অদক্ষ শ্রমিককে এ কারণে গ্রেপ্তার করে দেশে পাঠানো হয়েছে বলে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে। এ জন্য যারা দেশটিতে কাজ করছেন এবং ভবিষ্যতে কাজের জন্য সেখানে যাবেন তাদের সবাইকে এ বিষয়ে সতর্ক থাকতে অনুরোধ করা হয়েছে।

কাজী নজরুলের জন্মবার্ষিকীতে তিন দিনব্যাপী ত্রিশালে চলছে নানা আয়োজন

প্রকাশ: ২৪ মে ২০২৪, ০৭:৫৪ পিএম
কাজী নজরুলের জন্মবার্ষিকীতে তিন দিনব্যাপী ত্রিশালে চলছে নানা আয়োজন
ছবি : সংগৃহীত

অসাম্প্রদায়িক চেতনা এবং নজরুল’ প্রতিপাদ্য নিয়ে ময়মনসিংহের ত্রিশালে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ১২৫তম জন্মবার্ষিকী উদযাপিত হচ্ছে। জেলা প্রশাসনের আয়োজনে এবং সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় তিন দিনব্যাপী আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় দিনে নজরুল অডিটোরিয়ামে আলোচনা সভা শুরু হয় শুক্রবার (২৪ মে) বিকেল চারটায়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ত্রিশালের সংসদ সদস্য আনিছুর রহমান।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জুয়েল আহমেদের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শিক্ষা ও আইসিটি  মাহফুজুল আলম মাসুদ, জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা ফজলে রাব্বি ও বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মান্নান প্রমুখ।

আলোচনা সভা শেষে নজরুলের লেখা গান, কবিতা ও নাটক মঞ্চায়নের জন্য স্থানীয় ও জাতীয় পর্যায়ের শিল্পী গোষ্ঠীকে আমন্ত্রণ জানানো হয়।

এদিকে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে বৃস্পতিবার (২৩ মে) সকালে উপজেলার দরিরামপুর নজরুল একাডেমি মাঠে ফিতা কেটে ও বেলুন উড়িয়ে তিন দিনব্যাপী আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মহিববুর রহমান।

ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসনের আয়োজনে এবং সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতা নজরুল অডিটোরিয়ামে এদিন উদ্বোধনী আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। জেলা প্রশাসক দিদারে আলম মোহাম্মদ মাকসুদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো. মহিববুর রহমান। এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংসদ সদস্য শরীফ আহমেদ, ফাহমি গোলন্দাজ (বাবেল), এ বি এম আনিসুজ্জামান, নিলুফার আনজুম পপি, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এম এম মোহাইমেনুর রশিদ প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে স্বাগত ও স্মারক বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মাহফুজুল আলম মাসুম ও জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গীত বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আশিক সরকার।

আলোচনা সভায় বিদ্রোহী বাঙালির প্রতিচ্ছবি কাজী নজরুল ইসলামের মর্যাদা ও গুরুত্ব তোলে ধরেন বক্তারা। তার কবিতা ও গানের জনপ্রিতা বাংলাভাষী পাঠকের হৃদয়ে জায়গা করে নেওয়ার নানা দিক তুলে ধরা হয়।

এদিকে প্রতিবছরের মতো এবারও কাজী নজরুল ইসলামের স্মৃতিবিজড়িত নজরুল একাডেমি মাঠে বসেছে নজরুল গ্রামীণ মেলা। তিন দিনব্যাপী এবারের মেলায় শতাধিক দোকান বসেছে। মেলায় বিভিন্ন পণ্য নিয়ে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে এসেছেন ব্যবসায়ীরা। আনন্দ উদ্দীপনায় চলছে বেচাকেনা।

কামরুজ্জামান মিন্টু/এমএ/