ঢাকা ১ আষাঢ় ১৪৩১, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪

বলিউড অভিনেত্রীর মরদেহ উদ্ধার

প্রকাশ: ১১ জুন ২০২৪, ০১:১৩ পিএম
আপডেট: ১১ জুন ২০২৪, ০১:১৩ পিএম
বলিউড অভিনেত্রীর মরদেহ উদ্ধার

বলিউড অভিনেত্রী নূর মালবিকা দাসের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল সোমবার সকালে মুম্বাইয়ের একটি ফ্ল্যাট থেকে এই অভিনেত্রীর পচাগলা মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। 

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমের খবর অনুযায়ী, অভিনেত্রীর প্রতিবেশী ফ্ল্য়াট থেকে পচা গন্ধ পান। তার পরই তিনি পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। পরে ফ্ল্যাটের দরজা ভেঙে অভিনেত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়। তবে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হয়েছে প্রায় এক সপ্তাহ আগেই তার মৃত্যু হয়েছে। মালবিকা দাসের মোবাইল ফোন এবং ডায়েরিও উদ্ধার করেছে পুলিশ। তারা ধারণা করছেন আত্মহত্যা করেছেন তিনি। মালবিকা দাস আসামের মেয়ে। প্রথমে বিমানসেবিকা ছিলেন মালবিকা দাস। এরপর বেশ কিছু বিজ্ঞাপনেও কাজ করেছেন তিনি। বলিউডের সিনেমায় পার্শ্ব চরিত্রে দেখা গিয়েছিল তাকে। কাজল ও যিশু সেনগুপ্তের সঙ্গে ‘দ্য ট্রায়াল’ সিরিজে দেখা গিয়েছিল মালবিকা দাসকে।

প্রতিবেদনে আরও জানা গেছে, এই অভিনেত্রীর পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও কেউ আসেননি। ফলে পুলিশ মামদানি হেলথ অ্যান্ড এডুকেশন ট্রাস্ট এনজিওর সহায়তায় তার শেষকৃত্য সম্পন্ন করেছে।

জাহ্নবী

দুই মাস আগে মারা গেছেন চিত্রনায়িকা সুনেত্রা

প্রকাশ: ১৪ জুন ২০২৪, ০২:০০ পিএম
আপডেট: ১৪ জুন ২০২৪, ০২:০৪ পিএম
দুই মাস আগে মারা গেছেন চিত্রনায়িকা সুনেত্রা

প্রায় দুই মাস আগে প্রয়াত হয়েছেন আশির দশকের জনপ্রিয় অভিনেত্রী সুনেত্রা। গত ২৩ এপ্রিল ভারতের কলকাতায় শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন এই অভিনেত্রী।

মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫৩ বছর। মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন অভিনেতা জায়েদ খান। শুক্রবার (১৪ জুন) নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুকে দেওয়া একটি স্ট্যাটাসে জায়েদ খান লিখেছেন, ‘একসময়ের জনপ্রিয় নায়িকা, শৈশবের আমার পছন্দের একজন নায়িকা, চোখের প্রেমে পড়ত যে কেউ, তিনি সুনেত্রা। অনেক দিন আগেই বাংলাদেশ ছেড়ে কলকাতায় গিয়েছেন। ’আমি চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক থাকাকালীন কয়েকবার ফোনে কথা বলেছিলাম। আজকে হঠাৎ শুনলাম তিনি আর নেই, মৃত্যুবরণ করেছেন। নীরবে নিভৃতে চলে গেলেন। এভাবেই হারিয়ে যায় মানুষ, চলে যায়। আপনি ভালো থাকবেন ওপারে। অনেক চলচ্চিত্র দেখব আর আপনাকে মিস করব।’ জানা গেছে, কিডনি রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন তিনি । সুনেত্রা ভারত, বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের বহু সিনেমায় অভিনয় করেছেন।

১৯৭০ সালে কলকাতায় জন্মগ্রহণ করেন সুনেত্রা। তার মূল নাম রীনা সুনেত্রা কুমার। থিয়েটারের মাধ্যমেই অভিনয়ের যাত্রা শুরু হয়েছিল তার।

১৯৮৫ সালে মুক্তি পাওয়া ‘উসিলা’ ছবি দিয়ে মাত্র ১৫ বছর বয়সে নায়ক জাফর ইকবালের বিপরীতে অভিষিক্ত হন তিনি। ১৯৯০ সালে দেলোয়ার জাহান ঝন্টুর ‘পালকি’ ছবির মাধ্যমেই প্রথম জনপ্রিয়তা এবং দর্শকমহলে পরিচিতি পান সুনেত্রা। এরপর চিত্রনায়ক জসীম, সোহেল রানা, ফারুক, ইলিয়াস কাঞ্চন, মান্নাসহ আরও অনেকের সঙ্গেই পর্দা ভাগ করেছেন তিনি ।

তবে জাফর ইকবালের বিপরীতে ১৯৯২ সালে ‘ঘর ভাঙা ঘর’ ছবিটিকেই সুনেত্রা অভিনীত সর্বশেষ বাংলাদেশি ছবি বলে ধরা হয় । এরপর বেশ কিছুদিন কলকাতার ছবিতে কাজ করেন। ১৯৯৯ সালের কলকাতার  অভিনেতা ভিক্টর ব্যানার্জির বিপরীতে সুনেত্রা অভিনীত সর্বশেষ ‘দানব’ ছবিটি মুক্তি পেয়েছিল।

 কলি 

চলচ্চিত্রে সরকারি অনুদান পেলেন যারা

প্রকাশ: ১৪ জুন ২০২৪, ১২:৩২ পিএম
আপডেট: ১৪ জুন ২০২৪, ১২:৩২ পিএম
চলচ্চিত্রে সরকারি অনুদান পেলেন যারা

বাংলাদেশের চলচ্চিত্রকে এগিয়ে নিতে প্রতিবছর বাংলাদেশ সরকার চলচ্চিত্র নির্মাণের জন্য বিশেষ অনুদান দিয়ে থাকে। মেধা ও সৃজনশীলতাকে উৎসাহিত করতেই এ উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এরই ধারাবাহিকতায় ২০২৩-২৪ অর্থবছরে চারটি শাখায় সরকার ২০টি পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রকে অনুদান দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এর মধ্যে ১৬টি চলচ্চিত্র নির্মাণের জন্য দেওয়া হবে ৭৫ লাখ টাকা করে। বাকি চারটি চলচ্চিত্র নির্মাণের জন্য দেওয়া হবে ৫০ লাখ টাকা করে। ১২ জুন প্রকাশিত এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে এমন তথ্য জানানো হয়।

প্রজ্ঞাপন সূত্রে জানা যায়, মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক শাখায় ৭৫ লাখ টাকা পেয়েছেন পরিচালক ও প্রযোজক সাজেদুল ইসলাম ‘পাকিস্তানে বন্দিজীবন ১৯৭১’ সিনেমার জন্য এবং রাকিবুল হাসান ‘ছোঁয়া’ সিনেমার জন্য পাচ্ছেন অনুদান। শিশুতোষ শাখায় ‘চলনবিলের মানিক’ সিনেমার জন্য ৫০ লাখ টাকা পাচ্ছেন প্রযোজক ও পরিচালক নিয়ামুল মুক্তা। প্রযোজক রাইদ মোরশেদ ও পরিচালক তাওকীর ইসলাম সিনেমা ‘অদ্ভূত’, পিপলু আর খান ও রাসেল রানা তাদের যথাক্রমে ‘নো ম্যাডস অব দ্য নর্থ’ এবং ‘কালের যাত্রা’ প্রামাণ্যচিত্রের জন্য একই শাখায় অনুদান পাচ্ছেন সমপরিমাণ টাকা।

এ ছাড়া সাধারণ শাখায় ৭৫ লাখ টাকা করে অনুদানের জন্য মনোনীত হয়েছে ১৪টি সিনেমার প্রযোজক ও পরিচালক। তারা হলেন প্রযোজক-পরিচালক মির্জা শবনম ফেরদৌসি ‘মিহিন গাথা’, প্রযোজক ও পরিচালক জাহাঙ্গীর হোসেন বাবর ‘ঠিকানা’, প্রযোজক ফজলে হাসান শিশির ও রবিউল আলম রবি ‘সুরাইয়া’, প্রযোজক ও পরিচালক গোলাম মোস্তফা ‘জয়া’, প্রযোজক পিংকি আক্তার ও পরিচালক সঞ্জয় সমাদ্দার ‘লোভ’, প্রযোজক ও পরিচালক এন রাশেদ চৌধুরী ‘সখী রঙ্গমালা’, প্রযোজক মিস শেলী কাদের ও পরিচালক নারগিস আক্তার ‘জাত’, প্রযোজক সুমন পারভেজ ও পরিচালক এ জেড এম মোস্তাফিজুর রহমান বাবু ‘ময়নার চর’, প্রযোজক ও পরিচালক মিশুক মনি ‘কালবেলা’, প্রযোজক মনোজ প্রামাণিক ও পরিচালক ইকবাল হাসান খান ‘সেয়ানা’, প্রযোজক ও পরিচালক গীতালি হাসান ‘আজিরন’, প্রযোজক নিজাম উদ্দিন ও পরিচালক আরিফ সিদ্দিকী ‘পোস্টমর্টেম’, প্রযোজক নূর মনির ও পরিচালক নাসরুল্লাহ মানসুর ‘হা ঘরে’ এবং প্রযোজক ও পরিচালক দেওয়ান নজরুল ‘মুক্তির চেতনা’ সিনেমার জন্য সরকারি অনুদান পাচ্ছেন।

প্রকাশিত প্রজ্ঞাপনে ৯ মাসের মধ্যে চলচ্চিত্রগুলো নির্মাণ করতে বলা হয়েছে নির্মাতাদের।

জাহ্নবী

ভালোবাসার চিহ্ন আঁকলেন মিমি

প্রকাশ: ১৪ জুন ২০২৪, ১২:৩০ পিএম
আপডেট: ১৪ জুন ২০২৪, ১২:৩০ পিএম
ভালোবাসার চিহ্ন আঁকলেন মিমি
মিমি চক্রবর্তী

কলকাতার জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা ও সাবেক সাংসদ মিমি চক্রবর্তী। বাংলাদেশে একটি মিউজিক ভিডিওতে প্রথম কাজ করেন তিনি। আরেফিন রুমির গাওয়া গানের ভিডিওতে মিমির সঙ্গে মডেল হিসেবে ছিলেন বাংলাদেশের নিরব। কৌশিক হোসেন তাপসের কথা ও সুরে মিউজিক ভিডিওটি পরিচালনা করেছিলেন কলকাতার বাবা যাদব। এরপর কৌশিক হোসেন তাপসের কথা, সুর ও সংগীতে ‘ভাল্লাগছে না’ শিরোনামের একটি গানে কণ্ঠ দেন মিমি। যেটি প্রকাশ হয়েছে মিমির ইউটিউব চ্যানেলে।

এরপরও বেশ কয়েকবার ঢাকায় এসেছেন তিনি। তবে সেটা নিয়ে তেমন কোনো আলোচনা হয়নি। আবারও ঢাকায় এসেছেন এই তারকা। কিন্তু এবার মিমির ঢাকায় আগমনে হইচই পড়ে গেছে মিডিয়াপাড়ায়। কারণ এবার মিমি এসেছেন ঢালিউড সুপারস্টার শাকিব খানের হাত ধরে। উপলক্ষ হচ্ছে ঈদে মুক্তি প্রতিক্ষীত সিনেমা ‘তুফান’। কারণ এই সিনেমা শাকিব খানের বিপরীতে অভিনয় করেছেন মিমি চক্রবর্তী। এই ছবির মাধ্যমে বাংলাদেশের রুপালি পর্দায় অভিষেক হচ্ছে তার। এতে আরও অভিনয় করেছেন মাসুমা রহমান নাবিলা, চঞ্চল চৌধুরী প্রমুখ। রায়হায় রাফী পরিচালিত ‘তুফান’ ছবিটি নিয়ে ইতোমধ্যেই আলোচনা তৈরি হয়েছে সিনেমাপ্রেমীদের মাঝে। গত ১২ জুন সন্ধ্যায় রাজধানীর একটি পাঁচতারকা হোটেলে এই ছবি নিয়ে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছিল। এতে যোগ দিতে কলকাতা থেকে উড়ে এসেছিলেন মিমি। আর অনুষ্ঠানে এসেই সবার মধ্যমণি হয়ে উঠলেন এই নায়িকা। এমনকি গ্রুপ ছবিতে দাঁড়িয়ে উপস্থিত সাংবাদিকদের প্রতি নিজ হাতে এঁকে দিলেন ভালোবাসার চিহ্ন; হার্ট।

অনুষ্ঠানে মিমি বলেন, ‘শাকিব খানের সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করতে পারা আমার জন্য এক বিরাট ব্যাপার ছিল। বাংলাদেশে আসার পর সবাই অতিথি বলছে। কিন্তু আমি তো তেমন মনে করি না। আমার ভাষা বাংলা, আপনিও বাংলায় কথা বলেন। আমি বিশ্বাস করি, আমরা সবাই বাঙালি। আমাকে বাংলাদেশের অতিথি বলবেন না। আমি আপনাদের মেয়ে, আপনাদের বন্ধু, আপনাদেরই বোন। আমার পাশে থাকবেন হৃদয়ে জায়গা দেবেন, যাতে আগামীতে আপনাদের আরও ভালো ছবি উপহার দিতে পারি।’

তিনি আরও বলেন, ‘এই সিনেমায় কাজ করার সময় একবারও মনে হয়নি বাইরের কোনো ছবিতে কাজ করছি। অনেকের সঙ্গে প্রথম কাজ করেছি ‘তুফান’ সিনেমায়। শাকিব খান, চঞ্চল চৌধুরী, নাবিলা অসাধারণ। আমি আশা করব এই সিনেমার কথা ঘরে ঘরে হবে।’ পাশাপাশি সিনেমাটি সবাইকে দেখার আহ্বান জানান মিমি চক্রবর্তী।

অনুষ্ঠানে শাকিব খান বলেন, ‘দর্শক আমাদের পাশে থাকলে ‘তুফান’ ইতিহাস গড়বে।’ 

ঈদুল আজহায় দেশব্যাপী মুক্তি পাচ্ছে ‘তুফান’। আলফা আই স্টুডিওস-এর ব্যানারে নির্মিত ছবিটির ডিজিটাল পার্টনার চরকি এবং ইন্টারন্যাশনাল ডিস্ট্রিবিউটর এসভিএফ।

জাহ্নবী

অংশগ্রহণই বড় কথা নয়

প্রকাশ: ১৪ জুন ২০২৪, ১২:২৮ পিএম
আপডেট: ১৪ জুন ২০২৪, ১২:২৮ পিএম
অংশগ্রহণই বড় কথা নয়

একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। সেখানে আনুশকা শর্মাকে দেখা গেছে এক ব্যক্তিকে শাসাচ্ছেন! কিন্তু কী ঘটেছিল তার বিস্তারিত এখনো কেউ বলতে পারছে না। তবে নেটিজেনরা ওই ভিডিওর মজার কিছু ব্যাখ্যা দাঁড় করিয়েছেন। 

গত রবিবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ২০২৪-এ নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে খেলতে নেমেছিল ভারত ও পাকিস্তান। হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে জিতে যায় ভারত। ম্যাচটি দেখতে নিউইয়র্কের নাসাউ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে উপস্থিত ছিলেন আনুশকা। সেখানকার গ্যালারিতে রাগী ভঙ্গিতে ক্যামেরায় ধরা পড়েন তিনি। ম্যাচ চলাকালীন সময়ে স্ট্যান্ডে থাকা আনুশকাকে দেখা যায় এক ব্যক্তির সঙ্গে ভীষণ রেগে কথা বলছেন। ওই ভিডিও সামাজিকমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়তেই নানান মজার মন্তব্য শুরু করেন নেটিজেনরা। এর আগে কয়েক বছর আগে একবার গাড়ি থেকে রাস্তায় ময়লা ফেলার জন্য এক ব্যক্তিকে বকুনি দিয়েছিলেন আনুশকা। সেই সূত্র ধরে একজন লিখেছেন, ‘আবার কি আবর্জনা তুলতে বলছে নাকি?’ আরেকজন লিখেছেন, ‘এ তো পরবর্তী জয়া বচ্চন।’

‘চাকদহ এক্সপ্রেস’ নামে একটি সিনেমা মুক্তির অপেক্ষা করছেন আনুশকা শর্মা। এই ছবিতে তাকে দেখা যাবে ভারতীয় এক নারী ক্রিকেটার ঝুলন গোস্বামীর ভূমিকায়। শুরুতে ছবিটি নেটফ্লিক্সে মুক্তির কথা ছিল। তবে পরে জানা গেছে, ছবিটি আর ওই প্ল্যাটফর্মে মুক্তি নাও পেতে পারে। এ কারণে ছবিটি মুক্তির দিনক্ষণ অনিশ্চিত। তবে এই ছবি তার কাছে ভিন্ন রকম অর্থ বহন করে। এই সিনেমা তাকে বুঝিয়ে দিয়েছে, কেবল অংশগ্রহণই তার কাছে বড় কথা নয়। বরং ভিন্ন ধরনের কাজ তাকে বড় করে তুলবে।

ছবিটির শুটিংয়ের পর পুরোপুরি গৃহবাসী হয়ে পড়েছিলেন আনুশকা। সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছিলেন, অনেক হয়েছে। এবার পরিবারকে সময় দেওয়া। তিনি বলেছিলেন, ‘মেয়েকে পর্যাপ্ত সময় দিচ্ছি। তাকে খাওয়ানো, রাতে রুটিন করে ওর দিকে খেয়াল রাখা ও ঘুমানোর সঙ্গে সঙ্গে বিছানায় যাওয়া- এসবের মধ্যেই কাটাচ্ছি।’ পরের ছবি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘পরের ছবিটা করার মতো কি না সেটা নির্ভর করবে গল্পটা কেমন তার ওপরে, মেয়েকে দেওয়ার পর যদি সময় থাকে তার ওপরে। কেবল অংশগ্রহণের জন্য আমি আর ছবি করতে চাই না। ছবি করব, যদি সেটা ‘চাকদহ’র মতো কিছু হয়।’

জাহ্নবী

রেবেকার ভয় নেই

প্রকাশ: ১৪ জুন ২০২৪, ১২:২৭ পিএম
আপডেট: ১৪ জুন ২০২৪, ১২:২৭ পিএম
রেবেকার ভয় নেই

আবদ্ধতাভীতি আছে রেবেকার। এটা লোকে জানলে অবশ্য তার কোনো আপত্তি নেই। এতে বরং তিনি খুশি। লোকে যদি শোনে যে রেবেকা ফার্গুসন এলিভেটর এড়িয়ে চলেন, সবাই বুঝে ফেলবে যে, যেখানেই উঠুন, তিনি সিঁড়ি ভেঙে উঠবেন।

ঘটনা জানাজানি হয়ে যায় ভ্যারাইটির এক শো-এ উপস্থিত হওয়ার সময়। এলিভেটরের বদলে তিনি সিঁড়ি ভেঙে পাঁচতলায় উঠলেন! নিজেকে তিনি অনেকটা বাস্তবজীবনের জেসন বর্ণের মতো। মোট কথা, প্রাণটা নিয়ে বেরিয়ে যাওয়ার রাস্তাটা তিনি আগেই বাতলে রাখেন।

‘সাইলো’ ছবির নির্বাহী প্রযোজক ও অন্যতম অভিনেত্রী ছিলেন রেবেকা ফার্গুসন। ওই ছবিতে দেখা যায়, বসবাস অযোগ্য পৃথিবীতে একটি গুহা তৈরি করে থাকছে মানুষ। কিন্তু শুটিংয়ের সময় রেবেকা অস্থির বোধ করছিলেন। যতই তাকে বোঝানো হচ্ছিল, এটা একটা সিনেমার সেট, এটা একটা লোকেশন মাত্র, কাজ হচ্ছিল না। রেবেকার মাথায় ছিল, কীভাবে জায়গাটা থেকে বের হওয়া যাবে! গত বছরের মে মাসে অ্যাপল টিভি প্লাসে মুক্তি পেয়েছিল ‘সাইলো’, এগিয়ে ছিল এমি অ্যাওয়ার্ডের দৌড়ে।

তবে সামনের ছবিতে রেবেকার এসব ভয় করতে হবে না। কারণ পরের ছবির গল্পটিতে আর আবদ্ধতার কোনো অবকাশ নেই। নতুন সিনেমায় তাকে দেখা যেতে পারে হোয়াইট হাউস ঘিরে এক জাতীয় সংকটের গল্পে। ছবিটি নির্মাণ করবেন কিংবদন্তী নির্মাতা জেমস ক্যামেরনের সাবেক স্ত্রী অস্কারজয়ী পরিচালক ক্যাথরিন বিগেলো। ছবিতে রেবেকার সহশিল্পী থাকবেন হলিউড তারকা ইদ্রিস এলবা। এ ছবি বানানো হবে নেটফ্লিক্সের জন্য।

জাহ্নবী