ঢাকা ১ আষাঢ় ১৪৩১, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪

যে বৃক্ষ মুগ্ধতা ছড়াচ্ছে

প্রকাশ: ০৯ জুন ২০২৪, ০২:৩২ পিএম
আপডেট: ০৯ জুন ২০২৪, ০২:৩২ পিএম
যে বৃক্ষ মুগ্ধতা ছড়াচ্ছে

ত্রিশালে থাকাকালে একটি বটগাছ ছিল জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের অতি প্রিয়। ইতিহাস থেকে জানা যায়, এখানে বাঁশের বাঁশি বাজিয়ে কবির বহু দ্বিপ্রহর কেটেছে। পাশেই ছিল শকুনি বিল। যেখানে তিনি সহস্র হংস-সারি ও চখাচখির মিলনমেলা দেখতেন। যার চিত্র আছে তার রচনায়, গানে। মনোমুগ্ধকর সে পরিবেশে নজরুল উচ্ছ্বসিত হতেন। পাগলের মতো বাঁশি বাজাতেন। বলতেন, আমি ভগীরথ পাখি নামাচ্ছি।

আমি হ্যামিলটনের জাদুকর। বটগাছটি ছিল বিলের ধারে। প্রিয় সে বটগাছটির একটি প্রশস্ত ডালে বসে পা প্রসারিত করে অন্য একটি মোটা ডালে হেলান দিয়ে বাঁশি বাজাতেন। আজ সে শকুনি বিল নেই। সেখানে গড়ে উঠেছে মানববসতি। আর সে শকুনি বিলে বটগাছের পাশেই প্রতিষ্ঠিত হয়েছে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়। ২০০৬ সালে সেই শকুনি বিলের বটগাছের পাশে নজরুলের নামে বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপিত হয়।

বর্তমানে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় যেখানে অবস্থিত, সেই জায়গা একসময় বটতলা নামেই পরিচিত ছিল।

সম্প্রতি বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী এলাকার বন্ধু সাজিদ ক্যাম্পাসে এসেছিল। তাকে নিয়ে জম্পেশ আড্ডা ও ঘোরাফেরা করলাম। পুরো ক্যাম্পাস ঘোরার পর তাকে নিয়ে গেলাম বটতলায়, নজরুলবৃক্ষ দেখাতে। আমাদের সঙ্গে আরও যুক্ত হলো সাকিব, মাছুম ও রিফাত। সাজিদ নজরুলবৃক্ষের কথা শুনেছে। দেখার জন্য কিছুটা কৌতূহলও ছিল তার। বটতলায় গিয়ে দেখলাম কোথাও চলছে আড্ডা, কোথাও তর্কবিতর্ক, কোথাও বা গানবাজনা ও নানারকম  কোলাহল। বটতলায় কিছুক্ষণ বসে গল্পগুজব আর আড্ডা দিলাম সবাই।

তারপর দেখা হলো দর্শন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক তারিফুল ইসলাম স্যারের সঙ্গে। দু-তিনজন মিলে একসঙ্গে আড্ডা দিচ্ছেন স্যাররা। সেখানে গল্প-আড্ডায় শুধু শিক্ষকরাই ছিলেন না, আশপাশে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে ছিলেন শিক্ষার্থী ও নানান পেশার মানুষ। নজরুল বটবৃক্ষের উৎসবমুখর এ পরিবেশ সম্পর্কে জানতে চাইলে ফিল্ম অ্যান্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থী মাসুম জানান, ‘নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থীরা বটবৃক্ষের তলায় চা আড্ডায় মেতে ওঠেন। জায়গাটি প্রতিনিয়ত সংস্কৃতিচর্চার অংশ হিসেবেই পরিচিতি লাভ করছে। একই সঙ্গে নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের ঐতিহ্য বহন করে চলেছে বটবৃক্ষটি। প্রায়শই ক্লাসের ফাঁকে, সান্ধ্য আড্ডা কিংবা গানবাজনায় মেতে উঠি সবাই। ফলে ক্যাম্পাসের চিরচেনা জায়গা এটি’।

শুধু ক্যাম্পাসের নয়, বাইরের যে কেউ জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ঘুরতে এলে নজরুলের স্মৃতিবিজরিত বটবৃক্ষের নিচে আড্ডায় বসেন। আর উৎসবমুখর পরিবেশ দেখে আপ্লুত হন। এ নিয়ে সাজিদ জানান, ‘নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় ঘুরে দেখার মধ্য দিয়ে  সুন্দর কিছু  মুহূর্ত সৃষ্টি হয়েছে। একটা ক্যাম্পাসে সবাই সবার এত আপন, এত কাছের, এত পরিচিত হতে পারে তা আমার আগে জানা ছিল না। বিশ্ববিদ্যালয়ের আনাচে-কানাচে শিক্ষার্থীদের কোলাহল যেন আনন্দের বহিঃপ্রকাশ। বিশেষ করে নজরুল বটবৃক্ষে আড্ডার সময়টা মনে রাখার মতো। যে গাছের কথা সবসময় শুনতাম, তা দেখে খুব ভালো লেগেছে।’

প্রতিনিয়ত গল্প, আড্ডা আর নজরুলস্মৃতির অন্যতম নিদর্শন হচ্ছে নজরুল বটবৃক্ষটি। এ যেন নজরুলিয়ানদের চিরচেনা গল্প-আড্ডার ঠিকানা। দেখে মনে হয়, শত বছর আগে এ গাছের নিচে বাজানো নজরুলের বাঁশির সুর যেন আজও চলমান। আর সে বাঁশির সুরে হারিয়ে গেছে নানান শ্রেণির মানুষ, গল্প, আড্ডার অজুহাতে আসছে নজরুলের বাঁশির সুরে মুগ্ধ হতে। নজরুল স্মৃতিতে অটুট থেকে এভাবেই মুগ্ধতা ছড়াচ্ছে এ গাছটি।

কলি

ঈদে ঢাকায় অবস্থানরত শিক্ষার্থীদের আপ্যায়ন করবে জবি

প্রকাশ: ১৫ জুন ২০২৪, ১২:৩৬ এএম
আপডেট: ১৫ জুন ২০২৪, ১২:৩৬ এএম
ঈদে ঢাকায় অবস্থানরত শিক্ষার্থীদের আপ্যায়ন করবে জবি
খবরের কাগজ গ্রাফিকস

ঈদুল আজহা উপলক্ষে প্রথমবারের মতো শিক্ষার্থীদের জন্য ব্যতিক্রম উদ্যোগ নিয়েছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। বাড়ি যেতে না পারা শিক্ষার্থীদের জন্য ঈদের দিন ঢাকায় ও ছাত্রী হলে অবস্থানরত সব শিক্ষার্থীদের আপ্যায়ন করাবে প্রশাসন। এর জন্য ৫টি খাসির ব্যবস্থা করা হয়েছে।

শুক্রবার (১৪ জুন) বিষয়টি খবরের কাগজকে নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম। তিনি বলেন, ঈদে ঢাকায় অবস্থান করা শিক্ষার্থীদের জন্য দুপুরের খাবারের আয়োজন করা হবে। হলের শিক্ষার্থীদের এবং সাধারণ শিক্ষার্থীদের তালিকা করতে প্রশাসনকে নির্দেশনা দিয়েছি।

এ বিষয়ে প্রক্টর অধ্যাপক ড. জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, ঈদের দিন অনেক শিক্ষার্থী বাড়ি যেতে পারে না। অনেকে হলে থাকে। এর মধ্যে ভিন্ন ধর্মের শিক্ষার্থীরাও রয়েছে। ঈদে বাড়ি যেতে না পারায় কেউ যেন আনন্দ থেকে বঞ্চিত না হয় সে জন্য উপাচার্য সবার জন্য দুপুরে খাবারের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এ জন্য ৫টি খাসির ব্যবস্থা করা হয়েছে। থাকবে পোলাও, ডিমের কোরমাসহ আরও নানা পদের খাবার। ক্যাম্পাসে বা ঢাকায় অবস্থানরত কর্মকর্তা-কর্মচারীদেরও এ আপ্যায়ন করা হবে। এর মাধ্যমে জবিতে প্রথমবারের মতো নতুন এক দৃষ্টান্ত স্থাপন হবে।

জাককানইবিসাস ও বাকৃবিসাসের তরুণ সাংবাদিকদের মিলনমেলা

প্রকাশ: ১৪ জুন ২০২৪, ০২:২৪ পিএম
আপডেট: ১৪ জুন ২০২৪, ১০:০৬ পিএম
জাককানইবিসাস ও বাকৃবিসাসের তরুণ সাংবাদিকদের মিলনমেলা

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি (জাককানইবিসাস) ও বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির (বাকৃবিসাস) তরুণ সাংবাদিকদের মধ্যে প্রীতি মিলনমেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৬ জুন) বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) এ মিলনমেলা উপলক্ষে দিনব্যাপী নানা আয়োজন করা হয়। 

এর মধ্যে মৌসুমি ফল দিয়ে আপ্যায়ন, ক্রিকেট ম্যাচ, নৌকা ভ্রমণ এবং রাতের প্রীতিভোজের মধ্য দিয়ে আয়োজন শেষ হয়।

প্রীতিভোজে উপস্থিত ছিলেন বাকৃবির ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আব্দুল আউয়াল। 

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন বাকৃবি সাংবাদিক সমিতির সাবেক সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক দীন মোহাম্মদ দীনু। বর্তমানে তিনি বাকৃবির জনসংযোগ দপ্তরের উপ-পরিচালকের দায়িত্ব পালন করছেন। 

এ ছাড়া বাকৃবিসাস ও জাককানইবিসাসের সাবেক ও বর্তমান সদস্যরাও উপস্থিত ছিলেন।

কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আসলাম বেগ বলেন, ‘সুন্দর এবং আনন্দঘন দিন কেটেছে আমাদের। বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির আতিথেয়তায় আমরা মুগ্ধ। কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সঙ্গে নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির অতীতে যেমন সৌহার্দপূর্ণ সম্পর্ক ছিল, ভবিষ্যতেও এ ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকবে বলে আশা করছি।’

জান্নাতী/পপি/

সড়কে নিহত চুয়েটের ২ শিক্ষার্থীর পরিবার পেল ২০ লাখ টাকা

প্রকাশ: ১৪ জুন ২০২৪, ১১:১৬ এএম
আপডেট: ১৪ জুন ২০২৪, ১১:১৬ এএম
সড়কে নিহত চুয়েটের ২ শিক্ষার্থীর পরিবার পেল ২০ লাখ টাকা
নিহতের পরিবারের কাছে অনুদান তোলে দিচ্ছেন জেলা প্রশাসক। ছবি: খবরের কাগজ

সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত চুয়েটের দুই শিক্ষার্থীর পরিবারকে ২০ লাখ টাকা অনুদান দেওয়া হয়েছে। আহত অপর শিক্ষার্থীর পরিবারকে দেওয়া হয়েছে ২ লাখ টাকা।

বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) বিকেলে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসের সম্মেলন কক্ষে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত চুয়েটের দুই ছাত্রের পরিবার ও আহত ছাত্রের পরিবারের কাছে অনুদানের চেক হস্তান্তর করা হয়।

এ সময় জেলা প্রশাসক (ডিসি) আবুল বাসার মোহাম্মদ ফখরুজ্জামান বলেন, ‘বাসের সঙ্গে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) দুই ছাত্র নিহত ও অপর ছাত্র আহত হওয়ার ঘটনা অত্যন্ত দুঃখজনক। সড়কে অকালমৃত্যু আমরা কখনো কামনা করি না। সড়ক দুর্ঘটনায় কারও অকালমৃত্যু হলে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কোনো সুযোগ নেই। এর পরও সরকার, জেলা প্রশাসন ও বাস মালিক সমিতি ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আগামী দুই মাসের মধ্যে চুয়েটের সড়কটি প্রশস্তকরণ করা হবে। নিহত দুই ছাত্র শান্ত সাহা ও তৌফিকুর রহমানের নামে এ সড়কের নামকরণ করার বিষয়ে নিহত ছাত্রদ্বয়ের অভিভাবকের অনুরোধের প্রেক্ষিতে আমরা সড়ক ও মহাসড়ক বিভাগকে প্রস্তাবনা পাঠাব। দুর্ঘটনায় যে দুইজন ছাত্র মারা গেছে বিশ্ববিদ্যালয়ে তাদের নামে কোনো ভবন বা চত্বর নামকরণ করা যায় কি-না জেলা উন্নয়ন সমন্বয় সভায় বিষয়টি উপস্থাপনসহ কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হবে।’

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম বলেন, ‘দুই ছাত্র নিহত ও একজন ছাত্র আহত হওয়ার ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে সংশ্লিষ্ট সবাইকে নিয়ে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট তাৎক্ষণিক বৈঠক করেন। এ সময় আমাদের ছাত্ররা বেশকিছু দাবি উত্থাপন করে। তিনি তাদের দাবিগুলো পূরণের অঙ্গীকার করেন। তিনি (ডিসি) কথা রেখেছেন।’

অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট একেএম গোলাম মোর্শেদ খানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. জামাল উদ্দিন আহমদ, চুয়েট ছাত্র কল্যাণ পরিষদের পরিচালক অধ্যাপক মো. রেজাউল করিম।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন রাউজান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) অংগ্যজাই মারমা, বিআরটিএর সহকারী পরিচালক রায়হানা আক্তার উর্থী।

অনুষ্ঠানে ছেলের মৃত্যুর স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন নিহত ছাত্র শান্ত সাহার বাবা কাজল সাহা ও নিহত তাওফিক হোসেনের বাবা মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন। 

গত ২২ এপ্রিল বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে মোটরসাইকেলে ঘুরতে বের হয়ে রাঙ্গুনিয়া থানার সত্য পীরের মাজার গেটসংলগ্ন সড়কে বাসের ধাক্কায় প্রাণ হারান চুয়েটের পুরকৌশল বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী শান্ত সাহা এবং গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যান একই বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র তাওফিক হোসেন। এ ছাড়া গুরুতর আহত হন পুরকৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র মো. জাকারিয়া হাসান হিমু।

ইফতেখারুল/ইসরাত চৈতী/

সাউদার্ন ইউনিভার্সিটির ৩৮তম একাডেমিক কাউন্সিল সভা

প্রকাশ: ১৩ জুন ২০২৪, ০৬:১১ পিএম
আপডেট: ১৩ জুন ২০২৪, ০৬:১১ পিএম
সাউদার্ন ইউনিভার্সিটির ৩৮তম একাডেমিক কাউন্সিল সভা
ছবি : খবরের কাগজ

সাউদার্ন ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ’র ৩৮তম একাডেমিক কাউন্সিলের সভা বুধবার (১২ জুন) বিকালে, বায়েজিদ আরেফিন নগরে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থায়ী ক্যাম্পাসের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়।

উপাচার্য (ভারপ্রাপ্ত) ড. শরীফ আশরাফউজ্জামানের সভাপতিত্বে আয়োজিত সভায় উপস্থিত ছিলেন ট্রাস্ট সেক্রেটারি অধ্যাপক সরওয়ার জাহান, ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. শরীফুজ্জামান, কলা, সমাজ বিজ্ঞান ও আইন অনুষদের ডিন অধ্যাপক চৌধুরী মোহাম্মদ আলী, অধ্যাপক ড. ইসরাত জাহান, আইকিউএসি’র পরিচালক অধ্যাপক ড. মো. শওকতুল মেহের, রেজিস্ট্রার, ডেপুটি-রেজিস্ট্রার, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক এবং বিভিন্ন বিভাগের বিভাগীয় প্রধানগণসহ অন্যান্যরা। 

সভায় স্প্রিং সেমিস্টার ২০২৪ এর শিক্ষার্থীদের অ্যাডমিশন ও এনরোলমেন্ট রিপোর্ট অনুমোদন, স্প্রিং ও ফল ২০২৩ এর স্নাতক ও স্নাতকোত্তর গ্র্যাজুয়েট লিস্ট অনুমোদন, একাডেমিক বিবিধ বিষয় নিয়ে আলোচনাসহ বিভিন্ন বিভাগের একাডেমিক সভার গৃহীত প্রস্তাবগুলো পাশ হয়। 

সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় গুণগত ও যুগোপযোগী শিক্ষার মাধ্যমে সাউদার্ন ইউনিভার্সিটি এগিয়ে যাবে এ প্রত্যাশা ব্যক্ত করে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন উপাচার্য (ভারপ্রাপ্ত) ড. শরীফ আশরাফউজ্জামান। বিজ্ঞপ্তি

জবিতে প্রথম ধাপে ভর্তি শেষে ফাঁকা ২৪৩ আসন

প্রকাশ: ১২ জুন ২০২৪, ০১:১৯ পিএম
আপডেট: ১২ জুন ২০২৪, ০৩:৫৮ পিএম
জবিতে প্রথম ধাপে ভর্তি শেষে ফাঁকা ২৪৩ আসন

গুচ্ছভুক্ত ২৪ বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক (সম্মান) প্রথম ধাপের ভর্তি শেষে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ২৪৩টি আসন ফাঁকা রয়েছে।

বুধবার (১২ জুন) ভর্তির টেকনিক্যাল কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মো. জুলফিকার মাহমুদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, জবিতে মোট আসন দুই হাজার ৮১৫টি। বিশেষায়িত বিভাগগুলোতে ১৬৫টি আসন রয়েছে। এই বিশেষায়িত আসন ছাড়া দুই হাজার ৬৫০টি আসনের বিপরীতে প্রথম ধাপে ভর্তি হয়েছেন দুই হাজার ৪০৭ জন শিক্ষার্থী।

এর আগে গুচ্ছভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের মধ্যে জবিতে সর্বোচ্চ ২৯ হাজার ৬০৩ জন ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী আবেদন করেন।

ভর্তিসংক্রান্ত যাবতীয় বিষয় https://jnu.ac.bd/ ওয়েবসাইটে জানা যাবে।

মুজাহিদ/ইসরাত চৈতী/অমিয়/